• খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯, যোগাযোগ: ০১৯১২ ০৪৯ ০৪৬, ০১৫৫৪ ৮৩৫ ৩৯৭
0 Comments

অল্প খরচে গ্রাফিক্স ডিজাইন কোর্স হাত ছাড়া করবেন কেন?

গ্রাফিক্স ডিজাইন কি?

গ্রাফিক ডিজাইন হলো কম্পিউটার সফ্টওয়্যার এর মাধ্যমে কল্পনা, তথ্য এবং গ্রাহকদের ধারণাগুলির সাথে যোগাযোগ করার জন্য, দৃশ্যমান ধারণা তৈরি করে।ঠিক এই মুহূর্তে বিশ্বে একটি মূল্যবান ও স্বপ্নের ক্যারিয়ারের নাম হচ্ছে গ্রাফিক্স ডিজাইন ।বর্তমান ডিজিটাল দুনিয়ায় এই বাজারে ইতোমধ্যেই বাংলাদেশের ডিজাইনারা ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছেন।বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন যেমন ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর, ইনডিজাইন ইত্যাদির মাধ্যমে লোগো, ফ্লায়ার, পেজ-লেআউট, বিজ্ঞাপণ, ব্রোশার, ম্যাগাজিন এবং কর্পোরেট রিপোর্ট এবং নকশা তৈরি করা। তাই আমরা প্রফেশনাল ট্রেনিং দিয়ে থাকি। অনলাইন ছাড়াও বর্তমানে দেশে-বিদেশে বিভিন্ন ডিজাইন ফার্ম, মিডিয়া হাউজ, কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান, মার্কেটিং, সংবাদপত্র এবং বিভিন্ন আইটি প্রতিষ্ঠানে গ্রাফিক্স ডিজাইনারদের চাহিদা, মূল্যায়ন ও বাজারদর এখন প্রায় আকাশছোঁয়া। বিভন্ন কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান, ন্যাশনাল-মাল্টি ন্যাশনাল কোম্পানি নিজস্ব গ্রাফিক্স ডিজাইনার নিয়োগ করছে।  Fiverr, Freelancer, Upwork সহ অনেক বড় বড় ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইটে আছে। তবে নতুন অবস্থায় Fiverr এবং  Freelancer মার্কেটপ্লেস ভালো ।

গ্রাফিক্স ডিজাইন কেন শিখবেন?

একজন গ্রাফিক ডিজাইনার অনলাইনে এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে সাবলম্বি হতে পারবেন। অনলাইন মার্কেটপ্লেসে অসংখ্য গ্রাফিক ডিজাইনার আছে কিন্তু বায়ারের চাহিদা অনুযায়ী কাজ করতে পারে খুব কম ডিজাইনার। তাই ভাল ভাবে কাজ শেখার কোন বিকল্প নেই।

১. উচ্চতর চাহিদা

২. উচ্চ বেতন স্কেল 

৩. বাড়ীতে বসে কাজ করার সুবিধা

৪. স্বাধীনতা

৫. ক্রিয়েটিভিটি

একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে কতটুকু শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রয়োজন?

আপনি যত শিক্ষিত হবেন তত আপনার কাজের মান বৃদ্ধি পাবে বলৈ আমি করি। তবে একজন গ্রাফিক ডিজাইনার হতে নুন্যতম উচ্চমাধ্যমিক পাস করা জরুরী। কারন গ্রাফিক ডিজাইন এবং অনলাইনে কাজের জন্য বেসিক ইংরেজী জানা অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন। অতএব, সুশিক্ষা একজন মানুষকে উন্নত ভবিষ্যতের দিকে প্রসারিত করে।

গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে আপনি যে যে সেক্টরে কাজ করতে পারবেন?

গ্রাফিক ডিজাইন ভাল ভাবে শেখার মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করতে পারবেন। যেমনঃ-

১। ইন্টারেক্টিভমিডিয়া

২। প্রমোশনাল ডিসপ্লে

৩। কর্পোরেট রিপোর্টস

৪। জার্নাল

৫। মার্কেটিং ব্রোশিউর

৬। সংবাদপত্র

৭। ম্যাগাজিন

৮। লোগো ডিজাইন

৯। ব্যানার/পোস্টার ডিজাইন

১০। বিজনেস কার্ড ডিজাইন ইত্যাদি।

শুধু ফটোশপ ইলাস্ট্রেটর শিখলেই কি গ্রাফিক ডিজাইনার হতে পারবো?

অবশ্যই পারবেন। তবে আমি মনে করি ফটোশপ ও ইলাস্ট্রেটরের পাশাপাশি ইন ডিজাইন, অটোক্যাড, ভিডিও এডিটিং এর কাজ শিখতে পারলে ভাল হয়। কারন যখন আপনি একাধিক বিষয়ের উপরে এক্সপার্ট হবেন তখন অবস্যই স্বাভাবিকের চাইতে বেশি কাজ পাবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে  পরিচিতি লাভ করার পদ্ধতি?

আপনি সম্পুর্ন ভাবে গ্রাফিক ডিজাইন শেখার পর নিজের কাজ সবার কাছে উপস্থাপন করা এবং নিজের পরিচয় তৈরি করা অত্যন্ত জরুরি। এজন্য বাংলাদেশের বিভিন্ন বড় বড় সার্চ ইঞ্জিন আছে যেখানে একাউন্ট খুলে নিজের তৈরি কিছু কাজ সাবমিট করে রাখনু যাতে সবাই আপনার কাজ দেখে আপনার দক্ষতা যাচাই করতে পারে।

আমাদের বৈশিষ্ট সমুহঃ

শীততাপ নিয়ন্ত্রিত ক্লাস রুম ও কম্পিউটার ল্যাব।

দক্ষ প্রশিক্ষক ও আনন্দময় পরিবেশ।

পরিক্ষার পূর্বমুহুর্তে বিশেষ নির্দেশনা মূলক ক্লাস।

দক্ষ শিক্ষকের মাধ্যমে ক্লাস নেওয়া হয়।

ফ্লেক্সিবল টাইমে ক্লাসের সুবিদা।

কর্মজীবিদের জন্য কোন প্রকার ব্যাচ ছাড়াই ক্লাস করানো হয়।

ভর্তি সংক্রান্ত নিয়ম এবং কিছু তথ্যঃ

ভর্তির জন্য প্রত্যেক কে অনলাইনে অ্যাপ্লাই করতে পারেন কিংবা সরাসরি আমাদের অফিসে আসতে পারেন অফিসের ঠিকানা ক-২, মা-মণি ভবন, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯ (এক্স-টেক কম্পিউটার আইটি সেন্টার) । যেকোন তথ্যের জন্য ফোন করতে পারেনঃ ০১৯১২ ০৪৯ ০৪৬, ০১৫৪ ৮৩৫ ৩৯৭ ।

Author

seo50441@gmail.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *